২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
shadhin kanto

আজ নড়াইল ও কালিয়া মুক্ত দিবস

প্রতিনিধি :
স্বাধীন কণ্ঠ
আপডেট :
ডিসেম্বর ১০, ২০২০
30
বার খবরটি পড়া হয়েছে
শেয়ার :
আজ-নড়াইল-কালিয়া- মুক্ত দিবস
| ছবি : আজ-নড়াইল-কালিয়া- মুক্ত দিবস

রিপন বিশ্বাস,( নড়াইল) কালিয়া: আজ (১০ডিসেম্বর) নড়াইল ও কালিয়া মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিপাগল দামাল ছেলেরা বুকের তাজা রক্ত দিয়ে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীকে সম্মুখ যুদ্ধে পরাজিত করে নড়াইল ও কালিয়াকে মুক্ত করে।

১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল নড়াইল ও কালিয়ার মুক্তিপাগল জনতা। নড়াইলের এসডিও’র বাসভবনকে স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধের সদর দপ্তর স্থাপিত হয়।

৭ই মার্চ কালিয়ার শেখ আব্দুস সালামের নেতৃত্বে স্কুল প্রাঙ্গণে পাকিন্থানী পতাকা পুড়িয়ে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

তার পুর্বে আব্দুস সালামকে আহবায়ক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কালিয়া থানা ‘স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ’ কমিটি গঠন করা হয়।

ওই সময় নড়াইলের জামায়াত নেতা পিস কমিটির সভাপতি মওলানা সোলায়মানের নেতৃত্বে ‘শান্তিবাহিনী গঠিত হয়’। তার একান্ত সচিবের দায়িত্ব পালন করেন কালিয়ার ইসলামপুর গ্রামের শেখ তবিবর রহমান মাষ্টার। তাদের নির্দেশে শতশত মুক্তিকামী মানুষকে ধরে এনে জবাই করে হত্যা করে।

৯ ডিসেম্বর নড়াইল শহরকে হানাদার মুক্ত করার জন্য পরিকল্পনা অনুযায়ী নড়াইলের কমান্তার উজির আহম্মেদ খানের নেতৃত্বে চতুর দিক থেকে ফজলুর রহমান জিন্নাহ, আনোয়ারুজ্জামান, শেখ আজিবর রহমান, শরীফ হুমায়ুন কবীর, সেলিম, হিলু, রানা, আমির হোসেনসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধারা আক্রমণ চালান।

তখন পাকবাহিনীর সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে বাগডাঙ্গা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর ও মতিয়ার রহমান শহীদ হন।

এ সময় মুক্তিবাহিনীর সদস্যরা চারিদিক থেকে প্রচন্ড গোলাবর্ষণ শুরু করলে পাক-বাহিনী আত্মসমর্পন করতে বাধ্য হয়।

অতঃপর ১০ ডিসেম্বর নড়াইল পাক হানাদার মুক্ত হয়
এছাড়া একই দিনে (১০ ডিসেম্বর) কালিয়াকে পাক হানাদার মুক্ত করতে কমান্ডার আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে ডেপুটি কমান্ডার ওমর আলী, মোল্যা ইমদাদুল হক, এসএম হারুনুর রশীদ, হেমায়েত মুন্সী, শহীদ চৌধুরী, শাহাজাহান বিশ্বাস, মাকলুকার চৌধুরী, সুবেদার মোশারেফ হোসেন টুকু, মোল্যা মনিরুজ্জামান, সৈয়দ সরাফ আলী, হাফিজুর রহমান, একরামূল হক টুকু, সাজ্জাদ হোসেন মোল্যা, সুলতান কাজীসহ প্রায় ২শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা যুদ্ধে অংশ গ্রহন করেন। ১০ ডিসেম্বর কালিয়া হানাদার মুক্ত হয় ।

দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে নড়াইল জেলা প্রশাসন,জেলা ও কালিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ইউনিট,চিত্রা থিয়েটার,সহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

আরও পড়ুন:
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষণ-রাজাকারদের তালিকা প্রনয়ণে সরকার বদ্ধ পরিকর: মন্ত্রী মোজাম্মেল হক

যশোর বেনাপোল কাস্টমসে ৫ মাসে রাজস্ব ঘাটতি হাজার কোটি টাকা

পিরোজপুরে রাস্তা থেকে কৃষকের কোপানো মরদেহ উদ্ধার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

গরম খবর
menu-circlecross-circle linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram